ঢাকা, ২৩ অক্টোবর শুক্রবার, ২০২০ || ৮ কার্তিক ১৪২৭

করোনা নিয়ে হাসপাতালে ট্রাম্প: বাতিল করা হয়েছে নির্বাচনী জনসভা

ক্যাটাগরি : আন্তর্জাতিক প্রকাশিত: ৪৬৮ঘণ্টা পূর্বে   ৭৯


করোনা নিয়ে হাসপাতালে ট্রাম্প: বাতিল করা হয়েছে নির্বাচনী জনসভা

মোহাম্মদ হাসানঃ করোনার মৃদু উপসর্গ দেখা দেওয়ায় চিকিৎসকদের পরামর্শে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে চিকিৎসার জন্য মিলিটারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার হোয়াইট হাউস সংবাদ সংস্থাগুলোকে জানিয়েছেন, করোনার  মৃদু উপসর্গ থাকার জন্যই চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি। তবে এক ভিডিয়ো বার্তায় নিজের ‘ভাল’ থাকার কথাও জানিয়েছেন ট্রাম্প।তবে এরআগেই ট্রাম্প তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া ও নিজের করোনাভাইরাস সংক্রমিত  হওয়ার খবর নিজেই জানিয়েছিলেন।


হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কেলি ম্যাকেনানি বলেছেন, ‘‘সাবধানতা অবলম্বন ও চিকিৎসকদের পরামর্শে বেথেসদার ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিক্যাল সেন্টারের স্পেশ্যাল সুইটে রাখা হবে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। আগামী কয়েক দিন সেখানেই থাকবেন তিনি। ওয়াল্টার রিডের প্রেসিডেন্সিয়াল অফিস থেকেই নিজের কাজ কর্ম করবেন তিনি।’’ শুক্রবার সন্ধ্যায় হোয়াইট হাউস থেকে মাস্ক পরে বেরিয়ে হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে গিয়েছেন। 


হোয়াইট হাউস থেকে আরও বলা হয়েছে, 

ইতিমধ্যেই ট্রাম্পকে করোনার পরীক্ষামূলক ওষুধের ডোজ দেওয়া হয়েছে। রেগেনেরস অ্যান্টিবডি ককটেলের সিঙ্গল ডোজ দেয়া হয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। এই ওষুধের এখনও ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে। বাজারে আসার জন্য প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র এখনও পায়নি রেগেনেরস।


আমেরিকার বিভিন্ন সংবাদপত্রের প্রতিবেদন অনুসারে, ট্রাম্পের মধ্যে কোভিড-১৯-এর মৃদু উপসর্গ রয়েছে। পাশাপাশি ট্রাম্পের বয়স ৭৪। ওজনও অনেকটা বেশি। সে জন্যই কোনও রকম ঝুঁকি না নিয়ে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মৃদু উপসর্গ থাকলেও তাঁর অবস্থার কোনও রকম অবনতি হয়নি বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। হোয়াইট হাউসের চিকিৎসক সিন পি কনলে ট্রাম্পের ব্যাপারে বলেন, ‘‘তিনি একটু ক্নান্ত হলেও খোশমেজাজেই রয়েছেন।’’


ট্রাম্প শনিবার নিজের টুইটার থেকে একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘‘আমি সুস্থ আছি।’’ মেলানিয়াও সুস্থ আছেন। এমনটি জানিয়েছেন সংবাদসংস্থা এএফপি।


প্রসঙ্গত, এক মাস পরেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। নির্বাচনের প্রচারে গিয়ে নিজের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলের আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু এর মধ্যেই করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হলেন তিনি। যার কারনে প্রচারপর্ব কিছুটা হলেও বিঘ্ন ঘটবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন ট্রাম্প অনুসারীরা। ট্রাম্পের বেশ কয়েকটি নির্বাচনী জনসভা ইতিমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে। কিছু জনসভা অনলাইনে অনুষ্ঠিত করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ট্রাম্প অনুসারীদের নীতিনির্ধারণী ফোরাম।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন: