ঢাকা, ১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার, ২০২০ || ১৬ আশ্বিন ১৪২৭
 নিউজ আপডেট:

মদনের উচিতপুর মিনি কক্সবাজার খ্যাত এলাকায় ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ৪

ক্যাটাগরি : জাতীয় প্রকাশিত: ১৩৫৬ঘণ্টা পূর্বে   ১৪১


মদনের উচিতপুর মিনি কক্সবাজার খ্যাত এলাকায় ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ৪

বিশেষ প্রতিনিধি : নীহার বকুল।

নেত্রকোনার মদন উপজেলার উচিতপুর হাওরে আনন্দ ভ্রমণে এসে ট্রলার ডুবে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ৪জন  এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। বুধবার (৫ আগস্ট) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে ১৫ জন পুরুষ এবং দুই শিশু লুবনা আক্তার (১০) ও তার বোন জুলফা আক্তার (৭)। তারা ময়মনসিংহের সদর উপজেলার সিরতা  ইউনিয়নের চরখরিচা গ্রামের  ওয়ারেছ উদ্দিনের মেয়ে। তাৎক্ষণিকভাবে বাকিদের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে বিভিন্ন নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়,নিহত পনের জনের সবাই মাদ্রাসা শিক্ষার্থী। তারা একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে ভ্রমনের উদ্দেশ্যে বের হয়। তাদের মধ্যে ১৬ জনের বাড়ি ময়মনসিংহের ভবানিপুরের কোনাপাড়া ও বিভিন্ন এলাকায় এবং দুই জনের বাড়ি বি-বাড়িয়ায়।

জানা গেছে, বুধবার সকালে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার  সিরতা ইউনিয়নের চর ভবানিপুরের কোণাপাড়া গ্রাম ও আটপাড়া উপজেলার তেলিগাতি গ্রাম থেকে ৪৮জন লোক উচিতপুর এসে ট্রলারে করে ভ্রমণে বের হন। ট্রলারটি উচিতপুর হাওড়ের গোবিন্দশ্রী রাজালী কান্দা নামক স্থানে পৌঁছলে উত্তাল ঢেউয়ের কবলে পড়ে বেলা ১২•৩০ টার দিকে ডুবে যায়। এতে ২২ জন যাত্রী নিখোঁজ হন এবং বাকীরা সাঁতরে কিনারে উঠে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহম্মেদ, উপজেলা চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, পৌর মেয়র আব্দুল হান্নান তালুকদার শামীম, মদন থানা পুলিশ ও মদন ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার আহমেদুল কবিরের নেতৃত্বে ডুবুরিদল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেন। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী অভিযান পরিচালনা করে ১৭ জনের লাশ উদ্ধার করে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বুলবুল আহম্মেদ জানান, ‘মদন হাওরে নৌকা ডুবিতে দুই শিশুসহ ১৭ টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ৪ জন নিখোঁজ রয়েছেন। উদ্ধার কাজ চলছে।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন:
আরও সংবাদ পড়ুন