ঢাকা, ২৩ অক্টোবর শুক্রবার, ২০২০ || ৮ কার্তিক ১৪২৭

তারাকান্দা উপজেলায় ৩য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী (৮) ধর্ষণের শিকার!

ক্যাটাগরি : বাংলাদেশ প্রকাশিত: ৩৯৪ঘণ্টা পূর্বে   ৭১২


তারাকান্দা উপজেলায় ৩য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী (৮) ধর্ষণের শিকার!

স্টাফ রিপোর্টার : নীহার বকুল    

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের চাড়িয়া গ্রামে ৮ বছরের শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 
 
ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে,বিগত রবিবার, তারাকান্দা উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের চাড়িয়া গ্রামের হাসিম উদ্দিনের আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ পড়ুয়া  লম্পট পুত্র জাহাঙ্গীর (২০) তার আপন ফুফাত বোনের শিশু কন্যা (ভাগিনী)কে পটেটো চিপস দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তার শোয়ার ঘরে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করেছে। শিশুটিকে এ কথা কাউকে না জানাতে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।তীব্র যন্ত্রণায় অস্থির শিশুটি  তার পড়নের হ্যাফ- প্যান্টে ধর্ষণের আলামত দেখিয়ে কান্নাকাটি করে তার মায়ের কাছে সবকিছু খুলে বলে। 

শিশুটির মা শরীফা আক্তার জানান,তার শিশু কন্যা রাতে তীব্র ব্যথায় চিৎকার ও কান্না কাটি শুরু করলে তাকে স্থানীয় চাড়িয়া বাজারের এক ওষুধ দোকানের ডাক্তারকে বাড়িকে ডেকে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।পরদিন সোমবার ভোরে ধর্ষণকারীর পিতা হাসিম উদ্দিনকে শিশুটির ভাষ্যনুযায়ী সবকিছু খুলে বললে,ধর্ষকের পিতা হাসিম উদ্দিন বলেন,"যা পারছ,তা করগা,"বাড়াবাড়ি করলে সমস্যা হবে" এসব বলে হুমকি দেয়।

ওই দিন  সোমবার সন্ধ্যায় ধর্ষিতা শিশুসহ তার মা শরীফা আক্তার তারাকান্দা থানায় ধর্ষনকারী জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু আইনে একটি মামলার অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে তারাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের বলেন,৩য় শ্রেণীতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা রুজু করা হয়েছে,ধর্ষনকারীকে গ্রেপ্তারের জন্য তারাকান্দা থানার বেশ কয়েকটি পুলিশের টিম কাজ করছে। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) ধর্ষিত শিশুর ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হবে ও জবানবন্ধী রেকর্ডের জন্য বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হবে।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন:
আরও সংবাদ পড়ুন